মতির দুশ্চিন্তা আরো বাড়িয়ে দিলেন সায়েম

নারায়ণগঞ্জ মেইল: নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলাধীন আলীরটেক ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে সরকারি দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের দলীয় প্রতীক নৌকার অন্যতম প্রধান দাবিদার ছিলেন তরুণ সমাজ সেবক সায়েম আহমেদ। কিন্তু অদৃশ্য ইশারায় আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন চলে যায় আলীরটেক ইউনিয়নের ব্যর্থ চেয়ারম্যান হিসেবে পরিচিত মতিউর রহমান মতির কাছে। এতে হতাশায় দমে যাননি আলীরটেকের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী সায়েম আহমেদ। এবার স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করে নৌকার প্রার্থী মতিউর রহমানের দুশ্চিন্তা আরো বাড়িয়ে দিলেন তিনি। উল্লেখ থাকে যে, আলীরটেক ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান জাকির হোসেনও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করার ঘোষণা দিয়েছেন।

১৩ অক্টোবর বুধবার দুপুরে নির্বাচনের রিটানিং অফিসার নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার প্রাণীসম্পদ কর্মকর্তা আতাউর রহমান ভুঁঞার কার্যালয়ে এই মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন চেয়ারম্যান প্রার্থী সায়েম আহামেদ। প্রাণীসম্পদ কার্যালয়ের কর্মকর্তা মাহবুব রহমানের হাতে মনোনয়নপত্র জমা দেয়া হয়।

মনোনয়নপত্র দাখিলের সময় সদর উপজেলা পরিষদ প্রাঙ্গনে আলীরটেক ইউনিয়নের বিভিন্ন শ্রেণি পেশার ব্যক্তিবর্গ ও আওয়ামীলীগ সহ এর অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী ‍উপস্থিত ছিলেন।

পরে চেয়ারম্যান প্রার্থী সায়েম আহামেদ নির্বাচনের আচরণবিধি মেনে এককভাবে রিটানিং অফিসার বরাবর শাšি—পূর্ণভাবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন।

মনোনয়নপত্র দাখিল শেষে স্থানীয় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে চেয়ারম্যান প্রার্থী সায়েম আহামেদ বলেন, আলীরটেক ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আমি একজন চেয়ারম্যান প্রার্থী। এই নির্বাচনে কোনো ধরণের বাধা প্রতিবন্ধকতা নাই। নির্বাচন অবাধ সুষ্ঠু হবে ইনশাহআল্লাহ। নির্বাচনে আমার উপর কোনো চাপ নাই, কিন্তু ভবিষৎে যদি কেউ চাপ সৃষ্টি করতে চায়, তাহলে আলীরটেক ইউনিয়নবাসীকে নিয়ে প্রতিহত করবো ইনশাহআল্লাহ। আজকে মনোনয়নপত্র দাখিলের সময়ও আপনারা দেখেছেন আইনশৃক্সখলা বাহিনী এখানে উপস্থিত রয়েছে। তারা আমাদের সহযোগীতা করছেন এবং সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য তারা সব ধরণের সহযোগীতা করবেন। মানুষ ভোট দিতে চায়, তাই সুষ্ঠু ভোটের পরিবেশ যেনো বজায় থাকে সেজন্য সকলের সহযোগীতা কামনা করি।

তিনি আরও বলেন, আমি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের একজন গর্বিত সদস্য, নারায়ণগঞ্জ সদর থানা আওয়ামীলীগের প্রস্তাবিত কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক। আমি নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন প্রত্যাশা নিয়ে দলের কাছে আবেদন করেছিলাম। কিন্তু অন্য একজন নৌকা প্রতীক পেয়েছেন, উনি আলীরটেক ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের কেউ না, কখনও আওয়ামীলীগের রাজনীতি করে নাই, দীর্ঘ ২৩ বছর যাবত তিনি চেয়ারম্যান। আওয়ামীলীগের কোনো রাজনৈতিক কর্মকান্ডে তিনি ছিলেন না। আমিই আলীরটেক ইউনিয়নে আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে সক্রিয় থেকেছি, আওয়ামীলীগের রাজনৈতিক কর্মকান্ডের সাথে আমিই জড়িত এবং আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের আমিই সংগঠিত করেছি। এ কারনে স্থানীয় নেতৃবৃন্দ, আওয়ামীলীগের নেতাকর্মী ও আমার এলাকাবাসীর অনুরোধে আমি চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে দাঁড়িয়েছি। তারা বলেছেন তারা আমার পাশে আছেন। তাদের দাবির প্রেক্ষিতে, তাদের ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠিত করার জন্য ভোটে দাঁড়িযেছি, কারন এখানে গত নির্বাচনে ভোট হয়নি। বিনা ভোটে চেয়ারম্যান হয়েছেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামীলীগ নেতা মোহাম্মদ হোসেন, হাজী মনির হোসেন, নারায়ণগঞ্জ সদর থানা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির নেতা শওদাগর খান, আলীরটেক ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুল মালেক, ৬নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন জনু, ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ইসমাইল মাদবর প্রমূখ।

Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments

নারায়ণগঞ্জ মেইলে এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

সর্বশেষ