আজ নাসিম ওসমান নেই বলে…

নারায়ণগঞ্জ মেইল: নারায়ণগঞ্জের রাজনীতিতে একসময় জাতীয় পার্টির বেশ দাপট থাকলেও বর্তমান পরিস্থিতিতে রাজনীতির মাঠে ঝিমিয়ে পড়েছে জাতীয় পার্টি। নারায়ণগঞ্জের পাঁচটি আসনের মধ্যে দুটি আসন জাতীয় পার্টির দখলে থাকলেও রাজনৈতিক কর্মকান্ডে এখনও বেশ পিছিয়ে আছেন তারা। একটা সময় নারায়ণগঞ্জের রাজপথ থাকেেতা জাতীয় পার্র্টির নেতাকর্মীদের দখলে। অথচ কালের বিবর্তনে এখন আওয়ামীলীগ ও বিএনপির পেছনেও তাদের ছায়া দেখা দুস্কর হয়ে পরেছে। জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টির পূূর্ণাঙ্গ কমিটি না থাকায় সাংগঠনিক দুর্বলতা কাটিয়ে উঠতে পারছে না তারা। আর এসব কিছুর মূলে একজন পরিপূর্ণ অভিভাবকের অভাবকেই দায়ী করছেন তৃণমল নেতাকর্মীরা। যে অভিভাবকত্ব দিয়ে নারায়ণগঞ্জ জাতীয় পার্টিকে সুদৃঢ় অবস্থানে নিয়ে গিয়েছিলেন প্রয়াত সাংসদ একেএমে নাসিম ওসমান, সে ধারাবাহিকতা অন্য কেউ সচল রাখতে না পারায় দিনে দিনে নারাণগঞ্জের রাজপথ থেকে হারিয়ে যাচ্ছে জাতীয় পার্র্টি- এমনটাই দাবি তাদের।
মূলত একেএম নাসিম ওসমান রাজনীতির মাঠে যেমন পারদর্শী ছিলেন তেমন দেশের প্রতি ভালবাসাও ছিল সীমাহীন। নাসিম ওসমানের মৃত্যুর পর তার কর্মীদের পাশাপাশি সহধর্মিনী পারভীন ওসমান ও পুত্র আজমেরী ওসমানকে কোনঠাসা করতে কুচক্রিমহল তৎপর রয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সর্বশেষ স্থানীয় একটি দৈনিক পত্রিকা অফিসে হামলার ঘটনায় ফের আলোচনায় আসেন আজমেরী ওসমান।

যদিও এঘটনায় দু:খপ্রকাশ করে এক বিবৃতিতে আজমেরী ওসমান বলেছেন, এই ন্যাক্কারজনক ঘটনায় এতদ্বসত্ত্বেও আমি দু:খ প্রকাশসহ মর্মাহত। তবে অনুরোধ থাকবে আপনাদের মত আমরাও মানুষ, সকলেই বাবা-মা, স্বজন নিয়ে এ সমাজে সম্মানের সাথে বেঁচে থাকার অধিকার রাখে। আমারও সেই অধিকার রয়েছে। প্রতিবেদনগুলোতে যেসকল কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য উপস্থাপনের মাধ্যমে চরিত্রহনন করা হয়, সেখানে কিছুটা পরিবর্তন এনে সত্য ও সঠিক তথ্য প্রদানে যত্নবান হলে চিরকৃতজ্ঞ থাকবো। তাছাড়া কল্যাণকর কাজের পাশাপাশি কখনো আমার কাজে ভুল পেলে আপনারা আমাকে আমার বীর মুক্তিযোদ্ধা পিতার মত সঠিক পথ দেখাবেন বলে আমি প্রত্যাশা করছি।

সূত্র প্রকাশ, নাসিম ওসমানের প্রয়ানে নারায়ণগঞ্জের রাজনৈতিক অঙ্গনে যেমন নেতৃত্ব শুণ্যতা তৈরি হয়েছে, তার চেয়ে বেশি শুণ্যতা তৈরি হয় তার দল জাতীয় পার্টিতে। নাসিম ওসমান প্রয়াত হওয়ার পর তার দল জাতীয় পার্টি নারায়ণগঞ্জ থেকে এক প্রকার গত হয়ে গেছে বলে আক্ষেপ করে জাতীয় পার্টির এক প্রবীন নেতা বলেন, আমাদের নেতা প্রয়াত এমপি নাসিম ভাই সংগঠনের একেবারে টপ লেভেলের নেতা থেকে একজন কর্মী পর্যন্ত সবাইকে চিনতেন, সবার খোঁজ খবর নিতেন। তাঁর প্রয়ানের পরও দলের দুইজন এমপি নারায়ণগঞ্জে। তারা দলকে তেমন সংগঠিত করার কাজ করেননি। মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত প্রায় তিন দশকেরও বেশি সময় নারায়ণগঞ্জে জাতীয় পার্টির হাল ধরে ছিলেন, চার বারের নির্বাচিত সংসদ সদস্য ও জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য একেএম নাসিম ওসমান।

এদিকে জাতীয় পার্টির একাধিক সূত্র জানিয়েছে, নাসিম ওসমানের মৃত্যুর পর নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে উপনির্বাচনে বিভিন্ন এলাকায় কর্মী সভায় পারভীন ওসমান এবং মেয়ে আফরিন ওসমানের কান্না এবং আবেগাপ্লুত বক্তব্য আজও ভুলতে পারেনি কেউ। গণমানুষের নেতা নাসিম ওসমানের জানাযা-ই প্রামাণ করে তিনি কতটা জননন্দিত ছিলেন। সেই নাসিম ওসমানের কর্মীরা এখন ভালো নেই। দলের কার্যক্রমও প্রায় বন্ধ। নেতা-কর্মীদের দাঁড়ানোর মতো জায়গা নেই। অথচ বর্তমানে তার সহধর্মিনী ও পুত্রকে কোনঠাসা করে রাখতে একটি মহল নানা ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। গত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পরে সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য পদে জোড়ালো প্রার্থী ছিলেন নাসিম ওসমান পত্নী পারভীন ওসমান। কিন্তু অদৃশ্য শক্তির কারণে তাও সম্ভব হয়নি। মূলত নাসিম ওসমান নেই বলেই তার পরিবারের সদস্য ও অনুসারিরা নানামুখী চাপে রয়েছেন-এমন মন্তব্য করেছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

 

Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments

নারায়ণগঞ্জ মেইলে এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

সর্বশেষ