Home আইন-আদালত বার ভবনের নামকরণের প্রতিবাদে আইনজীবী ফোরামের সংবাদ সম্মেলন

বার ভবনের নামকরণের প্রতিবাদে আইনজীবী ফোরামের সংবাদ সম্মেলন

বার ভবনের নামকরণের প্রতিবাদে আইনজীবী ফোরামের সংবাদ সম্মেলন

নারায়ণগঞ্জ মেইল: নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য একেএম সেলিম ওসমানের নামে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির বার ভবনের নামকরণ করার প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন করেছে বিএনপিপন্থী আইনজীবীদের সংগঠন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার নেতৃবৃন্দ।

 

বুধবার (৩০ নভেম্বর) দুপুরে বার ভবনের সামনে সংবাদ সম্মেলন করেন তারা।

 

এর আগে সংবাদ সম্মেলনের জন্য বার ভবনের দোতালায় অবস্থান নেন আইনজীবী ফোরামের নেতৃবৃন্দ কিন্তু আওয়ামী লীগের আইনজীবীদের বাঁধার মুখে বার ভবনের ভিতরে সংবাদ সম্মেলন করতে পারেননি তারা।

 

এ সময় জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট হাসান ফেরদৌস জুয়েলের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ পন্থী আইনজীবীরা আইনজীবী ফোরামের নেতৃবৃন্দকে বার ভবনের ভিতরে সংবাদ সম্মেলন করতে নিষেধ করেন এবং বাঁধা প্রদান করেন। এ সময় উভয়পক্ষের মধ্যে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয়। তর্কাতর্কির এক পর্যায় আইনজীবী ফোরাম নেতৃবৃন্দ বার ভবন থেকে বের হয়ে আসেন এবং নিচে নেমে সংবাদ সম্মেলন করেন।

 

সংবাদ সম্মেলনে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ও নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির আহবায়ক এডভোকেট সাখাওয়াত হোসেন খান বলেন, বাংলাদেশে ৬৭ টি বার রয়েছে কিন্তু কোথাও বার ভবনের কোনো ব্যক্তির নামে নামকরণ করা হয়নি। নারায়ণগঞ্জের আইনজীবী সমিতি আইনজীবীদের নিয়ন্ত্রণে নেই, সেটা সরকারি দলের নেতাদের নিয়ন্ত্রণে চলে গেছে আমরা ব্যক্তির নামে বার ভবন নির্মাণের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং আমাদের এই প্রতিবাদ অব্যাহত থাকবে। আমরা আশা করব আইনজীবী সমিতি তাদের এই ভুল সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসবে।

 

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন নারায়ণগঞ্জ জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আবুল কালাম আজাদ জাকির।

 

লিখিত বক্তব্য তিনি উল্লেখ করেন, নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির অগণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায়নির্বাচিত বর্তমান কমিটি নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির সকল সদস্যগণকে অপমান ও অপদস্থ করার হীন মানসিকতায় একটি উদ্যোগ গ্রহণ করিয়াছে, যাহা আমরা সমিতির সাধারণ সম্পাদক কর্তৃক প্রদত্ত এস.এম.এস এর মাধ্যমে জানিতে পারি যে, আগামী ০১/১২/২০২২ ইং তারিখ নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতিতে বার্ষিক ভোজ সভা ও বীর মুক্তিযোদ্ধা সেলিম ওসমান বার ভবনের উদ্বোধন হতে যাচ্ছে। অত্যন্ত দুঃখ ও পরিতাপের সাথে জানাচ্ছি যে, বাংলাদেশের ৬৭টি আইনজীবী সমিতি কোথাও কোন ব্যক্তির নামে আইনজীবী সমিতির ভবনের নামকরণ হইয়াছে বলিয়া আমাদের জানা নাই। মহামান্য উচ্চ আদালতের আইনজীবী সমিতির বিভিন্ন ভবনের মিলনায়তনের নাম কোন কোন বিশেষ ব্যক্তির নামে আছে এবং একই ভাবে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির পুরাতন ভবনের ২য় তলা প্রয়াত বিজ্ঞ আইনজীবী যিনি নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির একাধিক বার নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতি হিসাবে দায়িত্ব পালন করিয়াছেন তাহার নামে সুরুজ আলী মিলনায়তন ছিল এবং আমাদের জানা মতে বাংলাদেশের বিভিন্ন আইনজীবী সমিতিতে ভবনের বিভিন্ন তলা ও মিলনায়তনের নাম ব্যক্তি বিশেষ এর নামে আছে। কিন্তু নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির প্রায় ১৫০০ আইনজীবীর সুনাম ও সম্মান অবলুণ্ঠিত করিয়া এবং আইনজীবীদের আত্ম সম্মান বোধ কে জলাঞ্জলি দিয়া কোন বিশেষ ব্যক্তিকে খুশি করার হীন মানসিকতায় কিংবা আত্ন-স্বার্থ উদ্ধার করার লক্ষ্যে নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির নাম, ঐতিহ্য, ইতিহাস, ভাবমূর্তি ভুলুণ্ঠিত করিয়া বীর মুক্তিযোদ্ধা সেলিম ওসমান বার ভবন নাম প্রদান পূর্বক উক্ত ভবনটি উদ্ভোবন করার অপচেষ্টায় লিপ্ত হইয়াছে।

 

যতদূর সাধারণ আইনজীবীগণ জানেন তাহাতে মাননীয় সংসদ সদস্য এ.কে.এম সেলিম ওসমান মহোদয় যিনি নারায়ণগঞ্জ আইনজীবী সমিতিতে ৩,০০,০০,০০০/- (তিন কোটি) টাকার অধিক অনুদান প্রদান করিয়াছেন। তিনিও অনুদান প্রদানের সময় বার ভবনটির নাম তাহার নামে নামকরণ করিতে হইবে মর্মে কোনরূপ বক্তব্য প্রদান করেন নাই কিংবা কোন ব্যক্তিকে বা কোন দলকে বা সরকার দলীয় অগণতান্ত্রিক ভাবে নির্বাচিত ব্যক্তির জন্য উক্ত অনুদান প্রদান করিয়াছেন মর্মেও কোনরূপ বক্তব্য প্রদান করেন নাই। কাজেই অহেতুক চাটুকারী করার জন্য বা একজন মাননীয় সর্বজনীন শ্রদ্ধাভাজন ব্যক্তিকে বিতর্কিত করার জন্যউক্তরূপ কার্যক্রম গ্রহণ, নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতি কিংবা আইনজীবী সমাজ মারাত্মক ভাবে মর্মাহত, হতভম্ব ও ব্যথিত করিয়াছেন।

আমাদের জানামতে, মাননীয় সংসদ সদস্য উনার নির্বাচনীয় এলাকায় বহু নতুন স্কুল-কলেজ মাদ্রাসায় নতুন ভবন নির্মাণ করিয়া দিয়াছেন। কিন্তু কোথাও উনার নামে নাম ফলক উম্মোচন করিতে হইবে মর্মে কোনরূপ বক্তব্য প্রদান করেন নাই। কাজেই মাননীয় সংসদ সদস্য এর মতো একজন শ্রদ্ধা ভাজন ব্যক্তিকে বিতর্কিত করার উদ্দেশ্যে লিপ্ত কিছু ব্যক্তিকে সাধারণ আইনজীবীগণ ঘৃনা ভরে প্রত্যাখান করে। নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির বিজ্ঞ সিনিয়র‌ আইনজীবীগণ এবং সাধারণ আইনজীবীগণ উক্তরূপ বার ভবনের নামকরণের তীব্র বিরোধীতা করিয়া প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ব্যবস্থা গ্রহণ করিবেন বলিয়া জানা যায়। আমরা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম তথা নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখা, নারায়ণগঞ্জ আইনজীবী সমিতির সাধারণ সদস্যগণ আপনাদের মাধ্যমে সারা বাংলাদেশের আইনজীবীগণকে এবং চেয়ারম্যান বার কাউন্সিল সহ আইনজীবী দের সংগঠন বার কাউন্সিল এর সকল দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তাগণের দৃষ্টি আকর্ষণ করে জানাইতেছি যে, যদি নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির নাম পরিবর্তন করিয়া “নারায়ণগঞ্জ” এবং “আইনজীবী” শব্দ দুটি বাদ দিয়া করা হয় এবং প্রস্তাবিত ৭ তলা বিশিষ্ট ভবনটির নাম ১ জন ব্যক্তির নামে করা হয় তাহা সাধারণ আইনজীবীগণ কখনোই কোন ভাবে মেনে নিবে না।

 

আইনজীবী সমিতি একটি স্বতন্ত্র পেশাজীবী সংগঠন এবং আইনজীবী সমস্ত আইন কানুনের ধারক এবং বাহক। তাহাদের ডিগনিটি আত্ন সম্মানবোধ জলাঞ্জলি দিয়া কিংবা তাহাদের সম্মানকে খাটো করিয়া কোনরূপ উদ্দেশ্যেমূলক এবং চাটুকারী সিদ্ধান্ত গ্রহণ করিলে উক্ত সিদ্ধান্তের জন্য ভবিষ্যতে কোন অনাকাংখিত ঘটনা ঘটিলে কিংবা কাহারো প্রতি সম্মানবোধ নষ্ট হইলে বা কাহারোর মান সম্মানে প্রশ্ন বোধক কোন কিছু লিপি হইলে এর জন্য বর্তমানে অগণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে নির্বাচিত আইনজীবী সমিতির কার্যকরী কমিটি দায়ী থাকিবে এবং সময় মতো তাহাদের এর জন্য জবাব দিহিতার কাঠ গড়ায়
দাড়াতে হইবে।

 

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী ফোরামের সিনিয়র সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট আজিজুল হক হান্টু, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক এডভোকেট এইচএম আনোয়ার প্রধান, সাংগঠনিক সম্পাদক ওমর ফারুক নয়নসহ বিএনপির পন্থী আইনজীবী বৃন্দ।

Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments