চলমান কাজগুলো শেষ করার সুযোগ চান আইভী

নারায়ণগঞ্জ মেইল: আওয়ামী লীগ দলীয় মেয়র প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, সিটি করপোরেশনের যে কাজগুলো চলমান রয়েছে, সেগুলো শেষ করতে চাই। পাশাপাশি পরিবেশের ওপর জোর দিয়ে খাল খনন, পুকুর সংরক্ষণ, খেলার মাঠ ও পার্ক করা-এ ধরনের কাজ বেশি করতে চাই। আগামীতে যেন জনগণকে সুপেয় পানি পৌঁছে দিতে পারি, সে ব্যবস্থা করব। ওয়াসার পাইপ অনেক পুরোনো। আমি সব পাইপ পরিবর্তন করার কাজ চলমান রেখে এসেছি। আগামীতে এ প্রকল্পের কাজ শেষ করা হবে।

নগরীর ১৩ নম্বর ওয়ার্ডের জামতলা এলাকায় গণসংযোগকালে শুক্রবার সকালে আইভী এ কথা বলেন। তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জে কোনো নির্বাচন সহিংসতার পর্যায়ে যায়নি। আমি আশা করব, এবারের নির্বাচনেও আমরা সহিংসতা পরিহার করে একটি সুন্দর ও উৎসবমুখর পরিবেশে নির্বাচন করতে পারব।

আইভীর আগমনে এলাকায় ছিল উৎসবমুখর পরিবেশ। এক নজর দেখতে নারীরা ছুটে আসেন তার কাছে। আশপাশের বাড়ি থেকে ছিটানো হয় ফুলের পাপড়ি। এমন দৃশ্যে অভিভূত আইভীও হাত নেড়ে এলাকাবাসীর প্রতি শুভেচ্ছা জানান। ওয়ার্ডের ফয়েজ উল্লাহ নামের এক কাউন্সিলর প্রার্থীর মায়ের মৃত্যুর খবর শুনে তার বাড়িতে যান আইভী। শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের সান্ত্বনা দেন। এ ছাড়াও এদিন আইভী মসজিদ গলি, হীরা গলিসহ কয়েকটি মহল্লায় গণসংযোগ করেন।

গণসংযোগকালে আইভী স্থানীয় সংসদ সদস্য শামীম ওসমানকে ‘বড় ভাই’ বলে সম্বোধন করেন। এ নিয়ে ও দলীয় কোন্দল প্রসঙ্গে এ সময় সাংবাদিকরা তাকে প্রশ্ন করলে ক্ষুব্ধ হন তিনি। বলেন, ‘নির্বাচন করছি তৈমুর আলম খন্দকার সাহেবসহ সাত প্রার্থীর বিরুদ্ধে। সুতরাং আপনাদের প্রশ্ন এখানেই থাকুক। আমি এর বাইরে কথা বলতে চাই না।’

নগরীর যানজট প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আইভী বলেন, স্থানীয় সরকারের অধীনে যানজটের কিছু নেই। এজন্য এসপি সাহেব আছেন, ট্রাফিক বিভাগ আছে। তারা আমাদের কাছে যে ধরনের সহযোগিতা চাইবে, আমরা তা দিতে প্রস্তুত। আমাদের একটা ট্রান্সপোর্ট মাস্টারপ্ল্যান হচ্ছে। তারা বলে দেবে কী ধরনের যানবাহন এ শহরে থাকলে যানজট কমবে। এমআইআরটি লাইন আসছে, এটা এলে যানজট নিরসন হবে।

নির্বাচিত হলে সবচেয়ে গুরুত্ব কিসে দেবেন? জবাবে আইভী বলেন, খেলার মাঠ ও পার্কে। যেহেতু মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি শিশুদের জন্য পর্যাপ্ত খেলার মাঠের ব্যবস্থা করে দেওয়া। প্রয়োজনে জায়গা একোয়ার করে মাঠ করা এবং খালগুলো খনন করা হবে। প্রথমবার মানুষের চাহিদা ছিল শুধু রাস্তা আর ড্রেন। কিন্তু এখন মানুষের মাঝে ডিমান্ড আসছে আমাদের স্কুল নাই, কবরস্থান নাই। এগুলো এবার আমি হিসাব রাখছি। পরে এগুলোর কাজ করব।

প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী তৈমুর আলম খন্দকার প্রসঙ্গে আইভী বলেন, আমার কোনো অভিযোগ নেই। উনি প্রচার চালাচ্ছেন, আমিও চালাচ্ছি। দুদিন পরে দেখবেন সবাই ব্যস্ত হয়ে গেছে প্রচার-প্রচারণায়। তখন কেউ কারও বিরুদ্ধে অভিযোগ দেওয়ার সময় পাবে না।

আইভী আরও বলেন, আপনারা দেখছেন, মানুষ সব জায়গায় গেলেই সাড়া দেয়। এই এলাকাটা (জামতলা) অভিজাতদের এলাকা। শীতের দিন সবাই ঘুমাচ্ছে। তারপরও অনেক মানুষ বেরিয়ে এসেছে। এলাকার সব মুরব্বিরা এখানে আছেন। এটা আমার জন্য অনেক সৌভাগ্যের। আমি আশা করি তারা নৌকায় ভোট দেবেন। নৌকায় ভোট দিলেই আইভীকে দেওয়া হলো। আইভী আর নৌকা একই।

বিকালে আইভী সিদ্ধিরগঞ্জের ৬নং ওয়ার্ডে গণসংযোগ করেন। সেখানেও তাকে পেয়ে এলাকার নারী-পুরুষরা ছুটে আসেন। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আব্দুল কাদির, যুগ্ম-সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, জেলা যুবলীগের সহসভাপতি আলী রেজা রিপন, মহানগর যুবলীগের নেতা আলী নুর সুমন প্রমুখ।

Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments

নারায়ণগঞ্জ মেইলে এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

সর্বশেষ

You cannot copy content of this page