একই পরিবারের তিন প্রার্থী, বিভ্রান্ত নগরবাসী!

নারায়ণগঞ্জ মেইল: নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ১৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে অংশগ্রহণের লক্ষ্যে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন বর্তমান কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ এবং তাঁর পত্নী আফরোজা খন্দকার লুনা। নারায়ণগঞ্জ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে এ তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে। যদিও এ বিষয়ে জানতে বর্তমান কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদের মুঠোফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

 

এদিকে নানা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে অংশগ্রহণের জন্য নাগরিক কমিটির ব্যানারে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করবেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা এবং না’গঞ্জ জেলা বিএনপি’র আহবায়ক অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার- শনিবার দিনভর এমনটাই গুঞ্জন হিসেবে ভেসে বেড়িয়েছে নারায়ণগঞ্জের সর্বত্র। এ গুঞ্জনের সত্যতা অনেকটাই নিশ্চিত হওয়া গেছে কারণ শনিবার তৈমুর নিজেই গিয়েছিলেন জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে। যদিও এদিন তিনি মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেননি তবে সার্বিক খোঁজ-খবর নিয়েছেন বলে জানা গেছে।

 

এদিকে তৈমুরের নির্বাচনে অংশ নেয়ার খবরের সাথে যোগ হয়েছে একই পরিবারের আরো দুই জনের মনোনয়নপত্র সংগ্রহের বিষয়টি। ফলে তৈমুর পরিবার থেকে আসন্ন সিটি নির্বাচনে তিনজনের অংশগ্রহণের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। এতে করে বিভ্রান্তিতে পড়েছেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ভোটাররা। কারণ ১৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মাকসুদুল আলম খন্দকার খোরশেদ গত নির্বাচনের পূর্বে জানিয়েছিলেন তিনি আর এই পদে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবেন না। আর অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার এতদিন বলে আসছিলেন দলীয় প্রতীক ছাড়া তিনি নির্বাচনে অংশ নেবেন না। নিজেদের দেওয়া কথা থেকে ৩৬০ ডিগ্রি ঘুরে গেলেন তারা উভয়েই। সেই সাথে তৈমুর পরিবারের পুত্রবধূ আফরোজা খন্দকার লুনার মনোনয়নপত্র সংগ্রহের বিষয়টিও বিভ্রান্তির জন্ম দিয়েছে নগরবাসীর মনে।

 

খোরশেদ পত্নী লুনার মনোনয়ন সংগ্রহের বিষয়টির পাশাপাশি চলে আসছে খোরশেদের বিরুদ্ধে চলমান ধর্ষণ মামলার প্রসঙ্গটিও। কারণ নারী কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে ইতিমধ্যে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা এবং একটি ধর্ষণ মামলার আসামি খোরশেদ।  সাইদা শিউলি নামের এক নারী নিজেকে খোরশেদের স্ত্রী দাবি করে আইনের আশ্রয় নিয়েছেন। নারী অধিকার আদায়ের জন্য এবং একটু সুবিচারের আশায় দিনের পর দিন যাবত সাইদা শিউলি আইনের দ্বারা দ্বারে ঘুরছেন।

 

এদিকে ১৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হিসেবে আর নির্বাচনে অংশ নেবেন না মর্মে মসজিদে দাঁড়িয়ে ঘোষণা দেওয়ার পরেও নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন খোরশেদ। ইতিমধ্যে নির্বাচনী শোডাউনও করেছেন তিনি। গত শুক্রবার ১০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত খোরশেদের নির্বাচনী শোডাউনে অংশ নিয়েছিলেন তাঁর বড় ভাই অ্যাডভোকেট তৈমুর আলম খন্দকার।

Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments

নারায়ণগঞ্জ মেইলে এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

সর্বশেষ