না’গঞ্জ আওয়ামীলীগে পদহীন নেতার সংখ্যা বাড়ছে

নারায়ণগঞ্জ মেইল: দল ক্ষমতায় টানা তৃতীয়বারের মত। তৃতীয় মেয়াদে আওয়ামীলীগ সরকারের আমলে ব্যাপক উন্নয়নও হয়েছে নারায়ণগঞ্জে। কিন্তু সাংগঠনিকভাবে পিছিয়ে রয়েছে নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগ। ইতিমধ্যে জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগ এবং যুবলীগসহ সহযোগী প্রতিটি সংগঠনের মেয়াদোর্ত্তীণ হলেও কমিটি পুনর্গঠনের কোন উদ্যোগ নিচ্ছে না শীর্ষ নেতারা। বরং সহযোগী সংগঠনের যেসকল কমিটিগুলো বিলুপ্ত করা হয়েছে যেই কমিটির নেতারাও এখনো দলীয় কোন পদে আসতে পারছে না। ফার ফলে রাজনীতির মাঠে নতুনদের আগ্রহ কমে যাওয়ার পাশাপাশি পদ হারানোদের তালিকা দীর্ঘ হচ্ছে।

জানা গেছে, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এহসানুল হক নিপু পদ হারানোর পর এখনো কোন পদে না আসতে পারায় জেলা যুবলীগের ব্যানারে বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করছেন। নিপুর পরবর্তি কমিটির সভাপতি সাফায়ত আলম সানি নেতৃত্বধীন কমিটি বিলুপ্তের পর এখনো তিনি কোন পদে আসতে পারেননি। গত সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের সময় মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও মহানগর ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত করা হয়। বিলুপ্ত মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি জুয়েল হোসেন, সাধারণ সম্পাদক দুলাল প্রধান ও মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান রিয়াদ ও সাধারণ সম্পাদকসহ দুই কমিটিতে থাকা নেতারা কবে নাগাদ নতুন কমিটিতে পদ যাবে তা নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।

সূত্র বলছে, নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামীলীগের কমিটির মেয়াদ উর্ত্তীণ হয়েছে দীর্ঘদিন আগেই। কমিটির মেয়ার শেষ হলেও এখনো পর্যন্ত মহানগরীর ২৭ ওয়ার্ডে নতুন কমিটি গঠন করতে পারেনি। এছাড়াও নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সকল সংগঠনের মধ্যে শুধুমাত্র মহানগর আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে নিস্ক্রীয় নেতাদের সংখ্যা বেশি। মহানগর আওয়ামীলীগের অনেক নেতা দলের পদ-পদবী ব্যবহার করে আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে গেছে।

অপরদিকে, ২০২০ সালের নভেম্বর মাসে জেলা আওয়ামীলীগের কমিটির মেয়াদোর্ত্তীণ হয়েছে। বহু প্রত্যাশার পর জেলা আওয়ামীলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করা হলেও গত প্রায় সাড়ে চার বছরে রাজনীতিতে খুব একটা সফলতা দেখাতে পারেনি তারা। বিশেষ করে বিভেদ-বিভক্তি কাটিয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সকল নেতাকর্মীদেরকে এক ছাতার নিচে আনতে পারেনি জেলা আওয়ামীলীগের শীর্ষ নেতৃত্ব। এছাড়াও জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন বলয়ের পক্ষে কাজ করে আলোচিত সমালোচিত হয়েছেন। জেলা যুবলীগের অস্তিত্ব নেই বললেই চলে। জেলা যুবলীগের নেতারা এখন জেলা ও মহানগর আওয়ামীলীগের কমিটির পদে রয়েছেন। কিন্তু এখনো যুবলীগের কমিটি বিলুপ্ত করে নতুন কমিটি গঠন করা হয়নি। অপরদিকে শহর যুবলীগ এখনো মহানগর যুবলীগে রূপ নিতে পারেনি। নতুন কমিটি না হওয়ায় নতুন নেতৃত্বও সৃষ্টি হচ্ছে না। এতে করে দল ক্ষমতায় থাকার পরও সাংগঠনিক ভাবে পিছিয়ে রয়েছে নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগ।

সূত্র আরো বলছে, নারায়ণগঞ্জ আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে সাংগঠনিক ভাবে নেমে এসেছে স্থবিরতা। দীর্ঘদিন পদে থেকে নেতাদের মধ্যে চলে এসেছে ক্ষমতার অহমিকা আর কর্মীদের মধ্যে বিরাজ করছে চাপা ক্ষোভ। দলের নাম ভাঙ্গিয়ে নেতাদের নিজেদের পকেট ভারী হলেও কর্মীদের দুর্দিন আর কাটছেই না। এর ফলে নেতাদের সাথে কর্মীদের দূরত্ব ক্রমশই বেড়ে চলছে। দলীয় কর্মসূচিতেও কর্মীদের অংশ গ্রহন কমে গেছে। কর্মীদের দাবি, দলের নাম ব্যবহার কর দলের পদধারী নেতারা নানা ভাবে লাভবান হলেও কর্মীরা বঞ্চিত থেকে যাচ্ছে। এছাড়া নেতাদের মধ্যে পদের দীর্ঘসূত্রিতার কারণে অনেকটা অহমিকা কাজ করছে। ফলে নেতাদের সাথে কর্মীদেরও দূরত্ব বৃদ্ধি পেয়েছে।

Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments

নারায়ণগঞ্জ মেইলে এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

সর্বশেষ