বিজয়ের মাসে নির্বাচনের নামে তামাশা করেছিলো সরকার: এড. সাখাওয়াত

নারায়ণগঞ্জ মেইল: ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে গণতন্ত্র হত্যা দিবস আখ্যা দিয়ে দেশব্যাপী বিক্ষোভ কর্মসূচি দিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি। কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি এড. সাখাওয়াত হোসেন খানের নেতৃত্বে শহরে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা। মিছিলে পুলিশ বাঁধা দিয়ে নেতাকর্মীদের হাত থেকে ব্যানার ছিনিয়ে নেয় এবং মিছিল ছত্রভঙ্গ করে দেয়। বুধবার ৩০ ডিসেম্বর সকালে কয়েক হাজার নেতাকর্মী নিয়ে এড. সাখাওয়াতের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিলটি নারায়ণগঞ্জ ক্লাব মার্কেটের সামনে থেকে শুরু হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে চাষাঢ়ায় পৌছালে পুলিশ তাতে বাঁধা দিয়ে ছত্রভঙ্গ করে দেয়।


দুই বছর আগের এই দিনে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে গণতন্ত্র হত্যা দিবস পালন করতে শহরের বিভিন্ন স্থান থেকে নেতাকর্মীরা শহরের ক্লাব মার্কেটের সামনে এসে জড়ো হয়। নেতাকর্মীরা মাথায় কালো ব্যান্ড লাগিয়ে সরকার বিরোধী শ্লোগানে শ্লোগোনে মুখর করে তোলে নারায়ণগঞ্জের রাজপথ।


বিক্ষোভ পূর্ব সংক্ষিপ্ত সমাবেশে এড. সাখাওয়াত হোসেন খান বলেন, ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর বর্তমান অগণতান্ত্রীক সরকার ভোটের নামে প্রহসন করেছে। দেশের মানুষের সাংবিধানিক অধিকার গরণ করে একদলীয় শাসন ব্যবস্থা কায়েম করেছে। তাই এদিনটিকে দেশের মানুষ গণতন্ত্র হত্যা দিবস হিসেবে পালন করছে। এদিন অঘোষিতভাবে দেশে বাকশালী শাসর ব্যবস্থা কায়েম করা হয়েছিলো। ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনা দেশের মানুষের ভোটাধিকার হরণ করে নেয়া হয়, এই বিজয়ের মাসে গণতন্ত্রকে গলাটিপে হত্যা করে এই সরকার মুক্তিযুদ্ধ এবং মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে তামাশা করেছে। অবিলম্বে এই অবৈধ সরকারকে পদত্যা করে একটি নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন দেওয়ার দাবী জানাচ্ছি। অন্যথায় রাজপথে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তুলে এই সরকারকে ক্ষমতা থেকে টেনে নামানো হবে।

বিক্ষোভ মিছিলে আরো উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সহ সভাপতি ও মহানগর কৃষকদলের আহবায়ক মনির হোসেন খান, সদস্য সচিব গুলজার হোসেন খান, মহানগর যুবদলের সাধারণ সম্পাদক মমতাজউদ্দিন মন্তু, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক সাগর প্রধান, জেলা মৎস্যজীবী দলের আহবায়ক এড. এইচএম আনোয়ার প্রধান, জেলা শ্রমিকদলের সভাপতি মন্টু মেম্বার, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত ইসলাম রানা, জেলা যুবদলের সহ সভাপতি পারভেজ মল্লিক, যুগ্ম সম্পাদক শাহিন আহমেদ, মহানগর মৎস্যজীবী দলের যুগ্ম আহবায়ক লিংকন খান, ঋষিকেশ মন্ডল মিঠু, জেলা মৎস্যজীবী দলের যুগ্ম আহবায়ক দেলোয়ার হোসেন দিলিপ, মো: হোসেন, সদর থানার আহবায়ক সাখাওয়াত হোসেন জ্যাকী, ফতুল্লা থানার সভাপতি রাসেল প্রধান, সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক নাইম খান, মহানগর তাঁতী দলের সদস্য সচিব ইকবাল হোসেন, যুগ্ম আহবায়ক হযরত আলী, অপু রহমান, মহানগর যুবদল নেতা তরিকুল ইসলাম, মঞ্জুর হোসেন মঞ্জ,ু জাকির হোসেন, সম্রাট হাসান সুজন, রিকসন খান, ফকরুল হাসান, ওয়াসিম, সানাউল্লাহ, জসিমউদ্দিন, রাজিব খান, সজিব খন্দকার, জাহিদ খন্দকার, ফয়সাল, হৃদয় ভূইয়া, মহানগর ছাত্রদলের যুগ্ম সম্পাদক লিংরাজ খান, বন্দর থানার যুগ্ম আহবায়ক আল আমিন, রোমান, ছাত্রদল নেতা মোঃ শাকিল, রোমান, আলআমিনসহ কয়েক হাজার নেতাকর্মী।

Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments

নারায়ণগঞ্জ মেইলে এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

সর্বশেষ