জিউস পুকুর রক্ষায় প্রথম আন্দোলনকারী ছিলেন শুভ রায়

নারায়ণগঞ্জ মেইল: শহরের দেওভোগ ঐতিহ্যবাহী জিউস পুকুর রক্ষার্থে সম্প্রতি বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করেছে হিন্দু সম্প্রদায়। আর তাদের বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ। সর্বশেষ বুধবার চাষাঢ়ায় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে মেয়র আইভী ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে দেবোত্তর সম্পত্তি জিউস পুকুর দখলের অভিযোগে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ ও বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের আয়োজনে প্রতীকী অনশন কর্মসূচিতে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ সংহতি জানিয়েছিলেন।

কিন্তু এই জিউস পুকুর রক্ষার্থে সর্ব প্রথম মাঠে নেমেছিল মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি শুভ রায়। তিনিই প্রথম জিউস পুকুর রক্ষায় গণস্বাক্ষর, স্মারকলিপি দেয়াসহ বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করেছিলেন। সর্বশেষ গত বছরের ২৭ সেপ্টেম্বর ৫ দফা দাবীতে গণস্বাক্ষর কর্মসূচীর আয়োজন করেছিল শুভ রায়। ৫ দফা দাবী ছিল- পুকুরের পরিস্কার পরিছন্নতা, পুকুর খনন,পুকুরের পাড় নির্মাণ, পুকুরের চারদিকে বৃক্ষরোপন ও পুকুরপাড় দিয়ে হাটা। কিি তখন স্থানীয়রা তখন শুভ রায়কে সমর্থন জানিয়েছিল।

ঐ গণস্বাক্ষর কর্মসূচী শেষে সাংবাদিকদের শুভ রায় বলেছিলেন, আমি এই এলাকায় জন্ম গ্রহন করেছি, এই এলাকায় ছোট থেকে বড় হয়েছি, আমার মতন এখানে উপস্থিত সবারই শৈশবের স্মৃতি এই পুকুরের সাথে জড়িত। কিন্তু ২০১১ সালের পর থেকে এই পুকুরের রূপ বদলাতে শুরু করে। অবহেলা অনাদরে আজ এই পুকুর ভয়ংকর রূপ নিয়েছে। ডেঙ্গু মশা থেকে শুরু করে নানান রোগ জিবানুর উৎপত্তিস্থল এখন এই পুকুর। পুকুর পাড়ের শত শত পরিবার দৈন্যন্দিন জীবনের নানান কাজে এই পুকুর কে ব্যবহার করতো। কিন্তু আজ আর সম্ভব হয় না। এই দেওভোগ এলাকার সন্তান আমাদের নারায়ণগঞ্জের সিটি মেয়র সাহেবা নিজেও। বিগত চলতি মাসে তিনি প্রথম আলোকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে পুকুর খাল মাঠ জলাশয়ের উন্নয়নের লক্ষে বাজেট ঘোষনা করেন, এবং নানান উন্নয়নের কথা বর্ননা করেন। সেই সুবাদে আমরা এলাকাবাসী আজ আশা যাপন করছি হয়তো এইবার আমাদের এই জিউস পুকুরও সুনজরে পড়বে, শহরের অন্যান্য পুকুরের মতন এরও উন্নয়ন হবে।

এদিকে, জিউস পুকুর উন্নয়ণের পরিবর্তে জিউস পুকুর দখলের অভিযোগ উঠে মেয়র আইভীর বিরুদ্ধে। এরই মধ্যে মেয়রকে ভূমিদস্যু আখ্যায়িত করে বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ বক্তব্যও দিয়েছে।

এব্যাপারে জিউস পুকুর রক্ষায় প্রথম আন্দোলনকারী শুভ রায় তার ফেসবুক আইডিতে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, ২০১১ সালের নাটকীয় সিটি নির্বাচনের পর থেকেই দেবোত্তর সম্পত্তি দেওভোগের ঐতিহ্যবাহী জিউস পুকুর দখল হয়ে আছে তবে দীর্ঘদিন পর আজ হয়তো হিন্দু সংগঠনের নেতাদের ঘুম ভেঙ্গেছে তাই তারা প্রতিবাদ করছে। আমিও এই প্রতিবাদের সহমত প্রকাশ করছি এবং কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি হিন্দু সংগঠন সহ ন্যায়ের পক্ষে সর্বদা সোচ্চার থাকা সকল ইউনিটের নেতা কর্মীদের। কিন্তু ভয় হয় ইতিহাস স্বরণ করলে, কেননা বাংলার মাটিতে ন্যায়ের পক্ষে যখনই কোন আন্দোলনের সূচনা হয় তখনই একটি না একটি বেঈমান খন্দকার মুশতাক আবিস্কার হয়। এইবার আবার কোন হিন্দু বেঈমানের আবিস্কার হবে না তো? যারা দুই পক্ষের সাথে আতাঁত করে চলে-যারা দিনে করে হরি হরি রাতে করে গরু চোরি করে। যারা চোরকে বলে চোরি করতে গৃহস্থকে বলে সজাগ থাকতে। যারা দিনের আলোতে ভাই ভাই করে আর রাতের অন্ধকারে আফার জয় বন্ধনা করে। তাই খুব ভয় হয় ইতিহাস স্বরন করলে।

Subscribe
Notify of
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments

নারায়ণগঞ্জ মেইলে এ প্রকাশিত/প্রচারিত সংবাদ, তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট বিনা অনুমতিতে ব্যবহার বেআইনি।

সর্বশেষ

You cannot copy content of this page